1. [email protected] : Nirob Ahmed : Nirob Ahmed
  2. [email protected] : Nur Mohammad : Nur Mohammad
লেভার হ্যাটট্রিক, বায়ার্নের গোলবৃষ্টি
মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১০:৪৫ অপরাহ্ন

লেভার হ্যাটট্রিক, বায়ার্নের গোলবৃষ্টি

  • সময় : বুধবার, ৯ মার্চ, ২০২২
  • ৩৭ ০ পঠিত
গোল

আধঘণ্টার মধ্যে কোনো দল যখন চার গোল করে ফেলে তখন ম্যাচটার আর কিছু বাকি থাকে না। গোল উৎসব কোথায় গিয়ে শেষ হয় সেটাই তখন কৌতুলের বড় কারণ হয়ে ওঠে।

গতকাল মঙ্গলবার রাতে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোর দ্বিতীয় লেগের ম্যাচে শেষ পর্যন্ত বায়ার্ন মিউনিখ জিতেছে ৭-১ গোলে। দুর্ভাগা প্রতিপক্ষের নাম রেড বুল সালবার্জ। কে বলবে অস্ট্রিয়ান এই ক্লাব প্রথম লেগে বাভারিয়ানদের ১-১ গোলে রুখে দিয়েছিল!

সেই ক্ষোভ যেন ঘরের মাঠ অ্যালিয়েঞ্জ এরিনায় তুলল জার্মান জায়ান্টরা। সালবার্জকে গুঁড়িয়ে দিতে মূল ভূমিকাটা পালন করেছেন রবার্ট লেভানডফস্কি।

ম্যাচ শুরুর ২৩ মিনিটের মধ্যে হ্যাটট্রিক তুলে নেন পোলিশ স্ট্রাইকার। তার তিন গোলের দুটিই অবশ্য এসেছে পেনাল্টি থেকে। পরে ৩১ মিনিটে স্কোর লাইন ৪-০ করেন সার্জি জিন্যাব্রি। চার গোলের পরও ক্ষুধা কমেনি স্বাগতিক শিবিরের।

দ্বিতীয়ার্ধে আরো তিন গোল করে বায়ার্ন মিউনিখ। জোড়া গোল করেন টমাস মুলার। তার আত্মঘাতী গোলেই জার্মান বুন্দেসলিগার আগের ম্যাচে বায়ার লেভারকুজেনের সঙ্গে পয়েন্ট ভাগাভাগি করে বাভারিয়ানরা।

সেই মুলার মঙ্গলবার রাতে জ্বলে উঠলেন। তার দুই গোলের ফাঁকে সালবার্জ ম্যাচের একমাত্র ও সান্ত্বনাসূচক গোল করে। বায়ার্নের জালে বল জড়িয়ে অতিথিদের মান বাঁচান কেজেয়ারগার্ড।

৮৫ মিনিটে সালবার্জের কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন লিরয় সানে। মুলার যে দুটি গোল করেছেন দুটোরই উৎস ছিলেন জার্মান মিডফিল্ডার। তিন গোল করা লেভানডফস্কি অবদান রাখেন ম্যাচের শেষ তথা সানের গোলে।

দুর্দান্ত এই জয়ে হেসেখেলেই কোয়ার্টার ফাইনালে উঠল বায়ার্ন মিউনিখ। দুই লেগ মিলিয়ে ৮-২ গোলের জয়ে নক আউট পর্বের প্রথম ধাপ পাড়ি দিল সাবেক চ্যাম্পিয়নরা।

২০১১ সালে ডায়নামো জাগরেভকেও একই পরিণতি দিয়েছিল বায়ার্ন মিউনিখ। সেদিন আট মিনিটের ব্যবধানে তিন গোল করেছিল তারা। কাল রাতে অবশ্য ১১ মিনিটের ব্যবধানে লেভা হ্যাটট্রিক করেন।

চ্যাম্পিয়নস লিগে নিজের শততম ম্যাচে এরচেয়ে দুর্দান্ত খেলতে পারতেন না পোলিশ ফরওয়ার্ড। সবমিলিয়ে এই মৌসুমে ৪২টি গোল হয়ে গেল তার। আর চ্যাম্পিয়নস লিগে লেভার গোল এখন ৮৫টি।

এই টুর্নামেন্টে তার চেয়ে বেশি গোল আছে কেবল দুজনের- লিওনেল মেসি ও ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর। আর চার গোল করলে আর্জেন্টাইন সুপারস্টারকে টপকে যাবেন লেভা।

তবে পর্তুগিজ যুবরাজকে ছাড়িয়ে যেতে দরকার আরো ১৮ গোল। আরো একটা রেকর্ডে এই দুজনের পেছনে আছেন বায়ার্ন মিউনিখ প্রাণভোমরা। টুর্নামেন্টের তিনটি আলাদা মৌসুমে অন্তত ১০ গোল করলেন তিনি। এই কীর্তি রোনালদোর আছে সাতবার এবং মেসির পাঁচবার।

এখান থেকে শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন

এই জাতীয় আরে খবর
© All rights reserved © 2021 @CTnews Sports
Design CTnews Sports