1. [email protected] : Nirob Ahmed : Nirob Ahmed
  2. [email protected] : Nur Mohammad : Nur Mohammad
বাবরকে নিয়ে আফ্রিদির টুইটে সমালোচনার ঝড়
মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ০৯:৫৯ অপরাহ্ন

বাবরকে নিয়ে আফ্রিদির টুইটে সমালোচনার ঝড়

  • সময় : শনিবার, ২ এপ্রিল, ২০২২
  • ২১ ০ পঠিত
ইনিংস

লাহোরে বৃহস্পতিবার সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ৩৪৮ রানের পাহাড় গড়েও পাকিস্তানের কাছে ৬ উইকেটে হেরেছে অস্ট্রেলিয়া।

ওয়ানডে ইতিহাসে নিজেদের সর্বোচ্চ রান তাড়ায় ম্যাচ জেতানো ইনিংস খেলেছেন পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজম। ৮৩ বলে ১১৪ রানের দুর্দান্ত ইনিংসটি ছিল তার ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১৫তম সেঞ্চুরি।

বাবরের এমন মারকুটে ইনিংস দেখে তার প্রশংসা করতে কাপর্ণ্য করেননি পরাজিত দলের অন্যতম সেরা তারকা মার্নাস লাবুশেন। বললেন, ‘এককথায় অবিশ্বাস্য ইনিংস। ওর ব্যাটিংয়ের প্রতিটি মুহূর্ত উপভোগ করেছি। দুর্ভাগ্যজনকভাবে ইনিংসটা ছিল আমাদের বিপক্ষে।’

অথচ স্বদেশি কিংবদন্তি শহিদ আফ্রিদি এক রকম কটাক্ষই করলেন বাবরকে।

বর্তমান অধিনায়কের ৮৩ বলে ১১৪ রানকে ম্যাচ জেতানো ইনিংস মানতে নারাজ আফ্রিদি। তার মুখে প্রশংসা ঝরল খুশদিল শাহ, ইমাম উল হক ও শাহিন শাহ আফ্রিদির।

ম্যাচ শেষে এক টুইটে বুমবুম আফ্রিদি লেখেন, ‘অসাধারণ জয়। বাবর আজমের দারুণ শুরু। তবে শেষ দিকে ছন্দ হারিয়ে ফেলে। তাকে ম্যাচ উইনার হিসেবে দেখার অপেক্ষায় আছি। যাই হোক খুশদিল শাহ, ইমাম উল হক, শাহিন আফ্রিদিদের দারুণ পারফরম্যান্স। তোমরা আমাদের গর্বিত করেছো। ধরে রাখো।’

পাকিস্তানের বর্তমান অধিনায়ককে নিয়ে স্বদেশি সাবেক অধিনায়কের এমন টুইট পছন্দ হয়নি অনেক পাকিস্তানি ক্রিকেট ভক্তদের।

টুইটারে আফ্রিদির ওপর ক্ষোভ ঝেরেছেন পাকিস্তানের নেটিজেনদের একাংশ।

এর প্রতিক্রিয়ায় আহমেদ নামের এক পাকিস্তানি আফ্রিদির কাছে প্রশ্ন ছুড়েছেন, ‘বাবর তার খেলা শেষ ১৯ বলে ২৩ রান নিয়েছে। তাই আফ্রিদির কথা হয়তো কিছুটা সত্য। কিন্তু বাবরকে ম্যাচ উইনার হিসেবে দেখার অপেক্ষায় থাকার কথা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। এটি ম্যাচ উইনিং ইনিংস না হলে কোনটি?’

আফ্রিদির এমন টুইট অপ্রয়োজনীয় সমালোচনা বলে মন্তব্য অনেকের।

আব্দুল ওয়াসা লিখেছেন, ‘অপ্রয়োজনীয় সমালোচনা। বাবর পাকিস্তানের ইতিহাসের সর্বোচ্চ রান তাড়ার রেকর্ড গড়ে দিল, তবু সমালোচনা সইতে হচ্ছে। এটি ঠিক নয় লালা (আফ্রিদি)।’

আফ্রিদির মন্তব্যের একেবারে বিপরীত মত কানিয়ার সালার নামে এক পাকিস্তানি। তিনি লিখেছেন, ‘বাবর ছন্দ হারিয়ে ফেলেছে? সে তো ১৩৭ স্ট্রাইকরেটে ৮৩ বলে ১১৪ রান করে দিল। এটি যদি ম্যাচ জেতানো ইনিংস না হয়, তাহলে আমি আমার জীবনে কোনো ম্যাচ জেতানো ইনিংসই দেখিনি।’

বিষয়টিকে বাবরের উপর আফ্রিদির ব্যক্তিগত ক্ষোভ বলে মনে করেন কেউ কেউ।

এদের মধ্যে হামনা নামের একজন লিখেছেন, ‘আপনি তিন নম্বরের ব্যাটারকে ম্যাচ শেষ না করার জন্য দুষছেন? বাবর যখন এসেছিল তখন ১৮৭ বলে ২৩১ বাকি ছিল। আউট হওয়ার সময় এটি দাঁড়ায় ৩৫ বলে ৪০ রান। যেখানে দরকার, সেখানে সমালোচনা করুন। নিজের ব্যক্তিগত ক্ষোভ দূরে রাখুন।’

উমর ফারুক নামে এক পাকিস্তানি হতাশা প্রকাশ করে লিখেছেন, ম্যাচ নিয়ে আফ্রিদির বিশ্লেষণ দেখুন। মনেই হচ্ছে না তিনি গত দুই যুগ ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের অন্যতম তারকা।

প্রসঙ্গত, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বৃহস্পতিবার ৩৪৯ রানের বিশাল টার্গেট তাড়ায় ৬ বল হাতে রেখেই ৬ উইকেটের দাপুটে জয় পেল পাকিস্তান।

পাকিস্তানের জয়ে ৮৩ বলে ১১৪ রান করেন অধিনায়ক বাবর আজম। আর ৯৭ বলে ১০৬ রান করেন ইমাম-উল হক।

ওয়ানডে ক্রিকেটে রান তাড়ায় এটাই পাকিস্তানের সেরা জয়। এর আগে বাংলাদেশের বিপক্ষে সর্বোচ্চ ৩২৯ রান তাড়া করে জয় পেয়েছিল তারা।

ইনিংস

তথ্যসূত্র: টুইটার, ক্রিকেট পাকিস্তান

এখান থেকে শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন

এই জাতীয় আরে খবর
© All rights reserved © 2021 @CTnews Sports
Design CTnews Sports