1. [email protected] : Nirob Ahmed : Nirob Ahmed
  2. [email protected] : Nur Mohammad : Nur Mohammad
বাংলাদেশের পাওয়ার হিটার যারা
সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৮:১০ পূর্বাহ্ন

বাংলাদেশের পাওয়ার হিটার যারা

  • সময় : শনিবার, ৩০ জুলাই, ২০২২
  • ২৩ ০ পঠিত
বাংলাদেশের

কুড়ি ওভারের ক্রিকেটে ‘পাওয়ার হিটারদের’ বেশ কদর। ছয়-চারের বন্যা বইয়ে দিয়ে তাঁরা মুহূর্তের মধ্যে ম্যাচের গতিপথ বদলে দিতে পারেন।

যেমনটা করে থাকেন আন্দ্রে রাসেল, কিয়েরন পোলার্ড, হার্দিক পান্ডিয়া, আসিফ আলী, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, ডেভিড মিলার, লিভিংস্টোনরা। তবে বাংলাদেশে তাঁদের মতো পাওয়ার হিটার নেই।

জিম্বাবুয়ে রওনা হওয়ার আগের দিন অলরাউন্ডার শেখ মেহেদী হাসান স্পষ্ট করেই সে কথা বলেছেন, ‘চাইলেই আমরা রাসেল বা পোলার্ড হতে পারব না। আমরা বাংলাদেশিরা আসলে পাওয়ার হিটার না।’

তবে এতটা বিধ্বংসী না হতে পারলেও বাংলাদেশের ক’জন তরুণের কিন্তু মারমুখী ব্যাটিংয়ের সামর্থ্য আছে। মুনিম শাহরিয়ার, পারভেজ হোসেন ইমন, আফিফ হোসেনরা মেটাতে পারেন সময়ের দাবি, হয়ে উঠতে পারেন বাংলাদেশের পাওয়ার হিটার। সিনিয়রদের বিশ্রাম এবং প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে বলেই তাঁদের সামনে দারুণ এক সুযোগ।

সাধারণত দেখা যায়, পাওয়ার হিটাররা ইনিংসের ফিনিশিং দেন। বাংলাদেশের যেহেতু ওই ধরনের ফিনিশার পাওয়ার হিটার নেই, তাই সম্মিলিত প্রচেষ্টায় ইনিংস গড়ে তোলাই হতে পারে সাফল্যের ফর্মুলা।

যেহেতু সম্মিলিতভাবে, তাই কাজটা শুরু করতে হবে ওপেনারদের। মুনিম শাহরিয়ার, পারভেজ হোসেন ইমন, আফিফ হোসেনরা দারুণ একটা সূচনা করে দিতে পারলে মোসাদ্দেক, সোহান, শেখ মেহেদীরা ভালোই ফিনিশিং দিতে পারবেন।

প্রথমেই আসা যাক মুনিম শাহরিয়ার প্রসঙ্গে। তিনটি টি২০ খেলেছেন ময়মনসিংহের এ তরুণ। কিন্তু এখনও নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি। প্রিমিয়ার লিগ টি২০তে আবাহনী এবং বিপিএলে ফরচুন বরিশালের হয়ে দাপট দেখিয়েছিলেন তিনি। ফরচুর বরিশালের হয়ে রীতিমতো ঝড় তুলেছিলেন ডানহাতি এ ওপেনার। যা দেখে সাকিব আল হাসান বলেছিলেন, ‘বলের ক্লিন স্ট্রাইকার, দারুণ টাইমিং এবং সাহসী ক্রিকেটার। নিশ্চিতভাবেই বিপিএলের বড় আবিস্কার এই মুনিম শাহরিয়ার।’ তরুণ এ ওপেনারের সামর্থ্য আছে, তবে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে আত্মবিশ্বাসটা ভীষণ প্রয়োজন। তাঁকে আত্মবিশ্বাসী করে তুলতে জিম্বাবুয়ে হতে পারে উপযুক্ত প্রতিপক্ষ।

টি২০তে বাংলাদেশের সবচেয়ে দ্রুততম সেঞ্চুরিটির মালিক পারভেজ হোসেন ইমন। ২০২০ সালের ডিসেম্বরে বঙ্গবন্ধু টি২০ কাপে মাত্র ১৮ বছর বয়সে ৪২ বলে তিন অঙ্কে পৌঁছে সবাইকে চমকে দিয়েছিলেন। পাওয়ার, শট সিলেকশন, ম্যাচিউরিটি- সবই ছিল তাঁর ওই ইনিংসে। তাঁর ছেলেবেলার কোচ সোহেল ইসলাম জানিয়েছিলেন, ছোটবেলা থেকেই প্রতি বলে মারার চেষ্টা করত ইমন। এখন তার ব্যাটিংয়ে পরিপকস্ফতা এসেছে। তার ব্যাটিংয়ে আগ্রাসনটা রয়েছে। যেটা কুড়ি ওভারের ফরম্যাটে সম্পদ হয়ে উঠতে পারে।

তরুণ এ দলটির অন্যতম নিউক্লিয়াস আফিফ হোসেন। বাংলাদেশের ব্যাটারদের মধ্যে টি২০ ঘরানার ব্যাটিং করতে আফিফকেই দেখা যায়। ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলেন। দারুণ সব শটস খেলতে পারেন। ছয় মারায়ও বেশ দক্ষ। গত এক বছরে বাংলাদেশের হয়ে সবচেয়ে বেশি ছক্কা (১৮টি) তাঁর ব্যাট থেকেই এসেছে। তবে তাঁর সবচেয়ে বড় সমস্যা হলো ধারাবাহিকতা। সিনিয়রদের না থাকায় এ সিরিজে আরও বেশি দায়িত্ব নিয়ে খেলতে হবে আফিফকে। ইনিংস যেমন গড়তে হবে, চার-ছয় মেরে রানের চাকাও সচল রাখতে হবে ২২ বছরের এ তরুণকে।

এখান থেকে শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন

এই জাতীয় আরে খবর
© All rights reserved © 2021 @CTnews Sports
Design CTnews Sports