1. [email protected] : Nirob Ahmed : Nirob Ahmed
  2. [email protected] : Nur Mohammad : Nur Mohammad
জয় দিয়ে আইপিএল শুরু করলো মুস্তাফিজের দিল্লী
বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ১০:৪৪ পূর্বাহ্ন

জয় দিয়ে আইপিএল শুরু করলো মুস্তাফিজের দিল্লী

  • সময় : রবিবার, ২৭ মার্চ, ২০২২
  • ৫২ ০ পঠিত
চলতি ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ আইপিএলের ১৫তম আসরের দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল দিল্লী ক্যাপিটালস ও মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। হাই ভোল্টেজ ম্যাচে ৪ উইকেটের জয় পেয়েছে দিল্লী। ব্র্যাবোর্নে টস ভাগ্য এসেছিল দিল্লীর পক্ষে, যে দলে আছেন বাংলাদেশি ক্রিকেটার মুস্তাফিজুর রহমান। কোয়ারেন্টিন শেষ না হওয়ায় মুস্তাফিজ অবশ্য এই ম্যাচের একাদশে ছিলেন না। তবে তাকে ছাড়াই দারুণ জয় পেয়েছে দল। এর আগে টস জিতে দিল্লী প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়। ওপেনার ঈশান কিষাণের অনবদ্য অপরাজিত ইনিংস মুম্বাইকে এনে দেয় ১৭৭ রানের পুঁজি। নির্ধারিত ২০ ওভারে দলটি হারায় ৫ উইকেট, তবু কিষাণ ছিলেন অপরাজিত। ৪৮ বল মোকাবেলায় ৮১ রানে অপরাজিত থাকার দিনে কিষাণ হাঁকান ১১টি চার ও ২টি ছক্কা। এছাড়া অধিনায়ক ও আরেক ওপেনার রোহিত শর্মা করেন ৪১ রান, ৩২ বলের মোকাবেলায়। উদ্বোধনী জুটিতেই দুজনে এনে দিয়েছিলেন ৬৭ রান। দিল্লীর পক্ষে কুলদীপ যাদব তিনটি ও খলিল আহমেদ দুটি উইকেট শিকার করেন। জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ১৪ বলে ২১ রান করা টিম সেইফার্ট ও ২৪ বলে ৩৮ রান করা পৃথ্বী শো’কে হারালে বিপর্যয় শুরু হয় দিল্লীর। ৭২ রানের মধ্যে সাজঘরে ফেরেন ৫ ব্যাটার। এরপর ললিত যাদব এক প্রান্ত আগলে রাখেন। ১১ বলে ২২ রান করে শার্দূল ঠাকুর বিদায় নিলে ক্রিজে আসেন অক্ষর প্যাটেল। প্রায় ফসকে যাওয়া ম্যাচকে তিনিই নিয়ে আসেন নাগালে। খোলস ছেড়ে বেরিয়ে মারকুটে ব্যাটিং শুরু করেন ললিতও। দুজনে মিলে দলকে জেতান ১০ বল ও ৪ উইকেট হাতে রেখে। ৩৮ বলের মোকাবেলায় ৪৮ রানে অপরাজিত ললিত হাঁকান ৪টি চার ও ২টি ছক্কা। অসাধারণ ক্যামিও উপহার দেওয়া অক্ষর ২টি চার ও ৩টি ছক্কায় ১৭ বলে ৩৮ রান করে অপরাজিত থাকেন। মুম্বাইয়ের পক্ষে বাসিল থাম্বি তিনটি ও মুরুগান অশ্বিন দুটি উইকেট নেন।

চলতি ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ আইপিএলের ১৫তম আসরের দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল দিল্লী ক্যাপিটালস ও মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। হাই ভোল্টেজ ম্যাচে ৪ উইকেটের জয় পেয়েছে দিল্লী। ব্র্যাবোর্নে টস ভাগ্য এসেছিল দিল্লীর পক্ষে, যে দলে আছেন বাংলাদেশি ক্রিকেটার মুস্তাফিজুর রহমান। কোয়ারেন্টিন শেষ না হওয়ায় মুস্তাফিজ অবশ্য এই ম্যাচের একাদশে ছিলেন না। তবে তাকে ছাড়াই দারুণ জয় পেয়েছে দল।

এর আগে টস জিতে দিল্লী প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়। ওপেনার ঈশান কিষাণের অনবদ্য অপরাজিত ইনিংস মুম্বাইকে এনে দেয় ১৭৭ রানের পুঁজি। নির্ধারিত ২০ ওভারে দলটি হারায় ৫ উইকেট, তবু কিষাণ ছিলেন অপরাজিত। ৪৮ বল মোকাবেলায় ৮১ রানে অপরাজিত থাকার দিনে কিষাণ হাঁকান ১১টি চার ও ২টি ছক্কা। এছাড়া অধিনায়ক ও আরেক ওপেনার রোহিত শর্মা করেন ৪১ রান, ৩২ বলের মোকাবেলায়।

উদ্বোধনী জুটিতেই দুজনে এনে দিয়েছিলেন ৬৭ রান। দিল্লীর পক্ষে কুলদীপ যাদব তিনটি ও খলিল আহমেদ দুটি উইকেট শিকার করেন। জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ১৪ বলে ২১ রান করা টিম সেইফার্ট ও ২৪ বলে ৩৮ রান করা পৃথ্বী শো’কে হারালে বিপর্যয় শুরু হয় দিল্লীর। ৭২ রানের মধ্যে সাজঘরে ফেরেন ৫ ব্যাটার। এরপর ললিত যাদব এক প্রান্ত আগলে রাখেন। ১১ বলে ২২ রান করে শার্দূল ঠাকুর বিদায় নিলে ক্রিজে আসেন অক্ষর প্যাটেল।

প্রায় ফসকে যাওয়া ম্যাচকে তিনিই নিয়ে আসেন নাগালে। খোলস ছেড়ে বেরিয়ে মারকুটে ব্যাটিং শুরু করেন ললিতও। দুজনে মিলে দলকে জেতান ১০ বল ও ৪ উইকেট হাতে রেখে। ৩৮ বলের মোকাবেলায় ৪৮ রানে অপরাজিত ললিত হাঁকান ৪টি চার ও ২টি ছক্কা। অসাধারণ ক্যামিও উপহার দেওয়া অক্ষর ২টি চার ও ৩টি ছক্কায় ১৭ বলে ৩৮ রান করে অপরাজিত থাকেন। মুম্বাইয়ের পক্ষে বাসিল থাম্বি তিনটি ও মুরুগান অশ্বিন দুটি উইকেট নেন।

এখান থেকে শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন

এই জাতীয় আরে খবর
© All rights reserved © 2021 @CTnews Sports
Design CTnews Sports