1. [email protected] : Nirob Ahmed : Nirob Ahmed
  2. [email protected] : Nur Mohammad : Nur Mohammad
জ্বলে উঠেছে জয়, সঙ্গী ইয়াসির
বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ১১:০১ পূর্বাহ্ন

জ্বলে উঠেছে জয়, সঙ্গী ইয়াসির

  • সময় : শনিবার, ২ এপ্রিল, ২০২২
  • ২৭ ০ পঠিত
বাংলাদেশ

লিটন দাস ফেরার পর ইয়াসির আলী রাব্বিকে নিয়ে প্রতিরোধ গড়েন মাহমুদুল হাসান জয়। দুজনের জুটি থেকে এখন পর্যন্ত আসে ৪০ বলে ১৯ রান। বাংলাদেশ ২০০ রানের ঘর পার করে ৮৪.২ ওভারে।

দক্ষিণ আফ্রিকা, প্রথম ইনিংস: ৩৬৭/১০ (১২১ ওভার)

বাংলাদেশ, প্রথম ইনিংস: ২০২/৬ (৮৬ ওভার)

লাঞ্চের পর এসেই আউট লিটন

লাঞ্চের পর এসেই দ্বিতীয় বলে সাজঘরে ফিরলেন লিটন দাস। দুবার জীবন পেয়েছিলেন লিটন, কিন্তু কাজে লাগাতে পারেননি। জয়ের সঙ্গে তার জুটিতে স্বপ্ন দেখছিল বাংলাদেশ। শেষ পর্যন্ত লিজাড উইলিয়ামসের করা দ্বিতীয় সেশনের প্রথম ওভারে ফিরতে হয় তাকে। উইলিয়ামসের লেন্থ বল ব্যাট থেকে সরাসরি গিয়ে আঘাত হানে উইকেটে। ৯৩ বলে ৬ চারে ৪১ রান করেন লিটন। ভেঙে যায় ১৭১ বলে গড়া ৮২ রানের জুটি।

প্রথম সেশনে লড়লেন জয়-লিটন

চার উইকেট হারিয়ে ৯৮ রান তোলা বাংলাদেশ আজ শনিবার তৃতীয় দিনের প্রথম সেশনটি পার করেছে। আগের দিনের অপরাজিত ব্যাটসম্যান তাসকিন আহমেদ আজ ১০১ রানের মাথায় আউট হন। এরপর মাহমুদুল হাসান জয় ও লিটন দাস মিলে প্রথম সেশনের বাকি সময় পার করেন। ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে তারা ৮২ রান তুলে মধ্যাহ্ন বিরতিতে গেছেন। জয় ৮০ ও লিটন ৪১ রানে অপরাজিত আছেন। বাংলাদেশের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ১৮৩। নিউ জিল্যান্ডের প্রথম ইনিংসের চেয়ে বাংলাদেশ পিছিয়ে ১৮৪ রানে।

দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে জয়ের সর্বোচ্চ রান

দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে সর্বোচ্চ রানের ইনিংস খেললেন মাহমুদুল হাসান জয়। ডারবান টেস্টে এখন পর্যন্ত ২৩০ বলে ৮০ রানের ইনিংস খেলে অপরাজিত আছেন। হাফ সেঞ্চুরি করেছেন ১৭০ বলে। এর আগে সর্বোচ্চ ৭৭ রানের ইনিংস ছিল মুমিনুল হকের। জয়ের এর আগে সর্বোচ্চ ছিল ৭৮ রান।

রিভিউতে লিটনের রক্ষা

হার্মারের বলে লিটনের ব্যাটের খুব কাছ দিয়ে যায় উইকেটের পেছনে। জোরালো আবেদনে সাড়া দেন আম্পায়ার। সঙ্গে সঙ্গে রিভিউ নেন লিটন। রিপ্লেতে দেখা যায় বল ব্যাটে লাগেনি। ১৬ রানে জীবন পাওয়া লিটন আবারও বেঁচে যান। এর আগে হার্মারের বলে মাহমুদুল হাসান জয়ের বিপক্ষে রিভিউ নেয় দক্ষিণ আফ্রিকা। সেটিও ব্যর্থ হয়।

জয়-লিটনের ব্যাটে প্রতিরোধ, জুটির ফিফটি

দিনের শুরুতে নাইটওয়াচম্যান তাসকিন আহমেদ ফেরার পর ক্রিজে আসেন লিটন দাস। চার মেরে রানের খাতা খোলার পর খেলছেন দারুণভাবে। আগে থেকেই ক্রিজে থাকা মাহমুদুল হাসান জয় খেলছেন পুরো টেস্ট মেজাজে। ইতিমধ্যে তুলে নিয়েছেন ফিফটি। দুজনের ৬ষ্ঠ উইকেটের জুটি ছাড়িয়ে যায় পঞ্চাশ রান। তার আগেই দুজনের ব্যাটে ভর করে বাংলাদেশ পূর্ণ করে দেড়শ রান।

বিদেশের মাটিতে জয়ের টানা দ্বিতীয় ফিফটি

ক্যারিয়ারের তৃতীয় টেস্টে নিউ জিল্যান্ডের মাটিতে প্রথম হাফ সেঞ্চুরির দেখা পেয়েছিলেন মাহমুদুল হাসান জয়। সেই ম্যাচে বাংলাদেশ জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে। এবার দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে খেলতে নেমে তুলে নিলেন টানা দ্বিতীয় ফিফটি। দলের সতীর্থরা যখন আসা যাওয়ার মিছিলে তখন ঢাল হয়ে দাঁড়ান এই তরুণ তুর্কি। হার্মারকে সোজা ব্যাট চালিয়ে চার মেরে ১৭০ বলে দেখা পান হাফ সেঞ্চুরির। ৫টি চারে সাজানো ছিল তার ফিফটির ইনিংসটি।

দারুণ শুরুর পর জীবন পেলেন লিটন

অলিভিয়েরকে দারুণ পুল শটে চার হাঁকিয়ে রানের খাতা খোলেন লিটন দাস। এক বল ডট দিয়ে কাট করে পয়েন্টে আবার চার। দুর্দান্ত শুরু করা লিটন জীবনও পেয়েছেন ব্যক্তিগত ১৬ রানে। উইলিয়ামসের আউট সাইড অফের লেন্থ বল ব্যাটের কানায় লেগে চলে যায় প্রথম স্লিপে। ওখানে থাকা ফিল্ডার ডিন এলগার ধরতে পারেননি ক্যাচ, হতভম্ব হয়ে যান উইলিয়ামস। এই সুযোগ কাজে লাগাতে পারবেন লিটন?

দিনের শুরুতেই আউট নাইটওয়াচম্যান তাসকিন, ১০০ থেকে ২ রান পিছিয়ে থেকে তৃতীয় দিন শুরু করে বাংলাদেশ। লিজাড উইলিয়ামসের করা ৪৯.৪ ওভারে বাংলাদেশ ১০০ রান পূর্ণ করে। তাও বিশাল নো বল থেকে। এর ১ ওভার পরেই এই উইলিয়ামসের বলে সাজঘরে ফেরেন নাইটওয়াচম্যান তাসকিন আহমেদ। ১ রান আসে তার ব্যাট থেকে। গতকাল শেষ বিকেলে মুশফিকুর রহিমের উইকেট হারালে তাসকিনকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় বাংলাদেশ। ৬ বল খেলে মাহমুদুল হাসান জয়ের সঙ্গে তিনি দিন শেষ করে আসেন কোনো বিপদ ছাড়াই। আজ অবশ্য বেশিদূর যেতে পারলেন না। ক্রিজে এখন জয়ের সঙ্গী লিটন দাস। ডারবান টেস্টের তৃতীয় দিন শুরু, টিকে থাকাই বাংলাদেশের লক্ষ্য

ডারবান টেস্টের তৃতীয় দিনে শনিবার (২ এপ্রিল) মুখোমুখি হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা-বাংলাদেশ। ৯৮ রানে ৪ উইকেট নিয়ে দিন শুরু করেছে বাংলাদেশ। হাতে আছে ৬ উইকেট। বাংলাদেশ প্রথম ইনিংসে এখনো পিছিয়ে আছে ২৬৯ রানে। শেষ বিকেলে সিমন হার্মারের ঘূর্ণিতে এলোমেলো বাংলাদেশের ভরসা হয়ে আছেন মাহমুদুল হাসান জয়। ৪৪ রানে তিনি দিন শুরু করেন। তার সঙ্গে আছেন নাইটওয়াচম্যান হিসেবে নামা তাসকিন আহমেদ। বাংলাদেশের সামনে এখন লক্ষ্য একটাই, ক্রিজে টিকে থাকা।

মিরাজ বলছেন এখনো ফল অনুমান করা সম্ভব না , দ্বিতীয় দিন শেষ মেহেদি হাসান মিরাজ বলেন, ‘টেস্ট ক্রিকেটে সবসময় সুযোগ থাকে। ওরা ভালো ব্যাটিং করেছে। আমরাও ভালো জায়গায় বল করেছি। সবসময় সুযোগ থাকে টেস্ট ক্রিকেটে। যে কেউ-ই ভালো রান করতে পারে। নয় নম্বরে ব্যাটসম্যানেরও অনেক রান করার রেকর্ড আছে। ৫০ মেরেছে। ১০০ রানের জুটি গড়েছে। তারপরও আমাদের বোলাররাও ভালো করেছে।’

‘এখনো অনেক বাকি আছে। এখনোই ফল অনুমান করা সম্ভব না। টেস্টে এমন হয়ই। যারা বেশি ভালো খেলবে তারাই জিতবে। এখনো আমাদের অনেক সুযোগ আছে। জয় আছে, লিটন আছে, রাব্বি আছে, আমি আছি। যত দূরে যেতে পারি, চেষ্টা করব। যত দূরে যাব ততো ভালো হবে। ওদের জন্যও দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং করা কঠিন হবে। প্রথম ইনিংসে যতো দূরে যেতে পারি, সেটাই ভালো হবে’-আরও যোগ করেন।

দ্বিতীয় দিন শেষে এলোমেলো বাংলাদেশ , দ্বিতীয় দিন শেষ বাংলাদেশের সংগ্রহ ৪ উইকেট হারিয়ে ৯৮ রান। বাংলাদেশ এখনো পিছিয়ে আছে ২৬৯ রানে।

এক হার্মার একাই নিয়েছেন সবকটি উইকেট। দ্বিতীয় দিন শেষে এলোমেলো বাংলাদেশ। ব্যাট হাতে ভুগিয়েছিলেন হার্মার। বল হাতে একাই ধস নামিয়ে দিলেন। সাদমান ইসলামকে দিয়ে শুরু মুশফিকুর রহিমকে দিয়ে শেষ। এক প্রান্ত আগলে রেখেছেন মাহমুদুল হাসান জয়। তিনি ৪৪ রানে অপরাজিত আছেন। তার সঙ্গে তাসকিন আছেন ০ রানে।

শুরুতে সাদমান ফেরার পর জয়-শান্ত হাল ধরেন। দুজনের পঞ্চাশোর্ধ জুটি গড়ে প্রতিরোধের আভাস দেন। ৩৮তম ওভারের প্রথম বলে শান্ত আউট হতেই যেনো ধস নামে বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ে। তার ব্যাট থেকে আসে ৩৮ রান। মুমিনুল হক এসে রানআউট থেকে রক্ষা পেলেও শূন্য রানে ফিরতে হয় পিটারসেনের দুর্দান্ত ক্যাচে। মুশফিকুর রহিমও রিভিউ নিয়ে রক্ষা পেয়েছিলেন, কিন্তু কাজে লাগে পারেননি। দক্ষিণ আফ্রিকার নেওয়া রিভিউতেই সেই আউট হতে হয়। সবগুলো উইকেটের ঘাতক একজনই। সিমন হার্মার। ২০ ওভারে মাত্র ৪২ রান দিয়ে নেন ৪ উইকেট।

এখান থেকে শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন

এই জাতীয় আরে খবর
© All rights reserved © 2021 @CTnews Sports
Design CTnews Sports